ফল ধারন বৃদ্ধিতে কৃত্রিম পরাগায়ন

Pumpkin agic agro nursery

মিষ্টি কুমড়ার পরাগায়ন প্রাকৃতিক ভাবে প্রধানতঃ মৌমাছি দ্বারা সম্পন্ন হয়। বর্তমানে প্রকৃতিতে মৌমাছির সংখ্যা পর্যাপ্ত নহে। তাই কৃত্রিম পরাগায়নের মাধ্যমে মিষ্টি কুমড়ার ফলন শতকরা ২০-২৫ ভাগ বাড়ানো যায়। মিষ্টি কুমড়ার ফুল খুব সকালে ফোটে। ফুল ফোটার পর যত তাড়াতাড়ি পরাগায়ন করা যায় ততই ভালো পলন পাওয়া যায়। মিষ্টি কুমড়ার কৃত্রিম পরাগায়ন সকাল ৯ঃ০০ ঘটিকার মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে।

কৃত্রিক পরাগায়নের নিয়ম হলো ফুল ফোটার পুরুষ ফুল ছিড়ে নিয়ে ফুলের পাপড়ি অপসারন করা হয় এবং ফুলের পরাগধানী (যার মধ্যে পরাগরেনু থাকে) আস্তে করে স্ত্রী ফুলের গর্ভমুন্ডে (যেটি গর্ভাশয়ের পিছনে পাপড়ির মাঝখানে থাকে) ঘষে দেয়া হয়।

আমাদের Whatsapp গ্রুপে এড হতে পারেন কৃষি পরামর্শের জন্য https://chat.whatsapp.com/C70zLhZIXslFbdzhrwOSmi

Sharing is caring!

1 COMMENTS ON THIS POST.

  1. Quamrul Ahsan says:

    Thanks for the appropriate suggestions

LEAVE YOUR REPLY